24 August, 2019

ইউটিউব কি? কেন টাকা দেয়? আপনি কিভাবে টাকা পাবেন?

সবাইকে রক্তঝরা ফাল্গুনের শুভেচ্ছা। বসন্তের সকল ফুলের রং যেন আপনার জীবনে নেমে আসে এই কামনায় আজকের টিউন শুরু করতে যাচ্ছি।

টিউনের প্রথমেই বলে রাখি, যারা শুধুমাত্র টাকা আয়ের উদ্দেশ্যে ইউটিউবে যাত্রা শুরু করেছেন তারা কোনদিনও সফল হতে পারবেন না। কারণ প্রথম কয়েক মাসের মধ্যে টাকা না পেলে হতাশ হয়ে পরবেন।

আজকের টিউনটা পড়ে আপনি ইউটিউবে কিভাবে টাকা আয় করা যায় তা হয়ত শিখবেন না। তবে ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয় তা বুঝতে পারবেন। আশা করি ভালো লাগবে।

ইউটিউব কি? কেন টাকা দেয়?

ইউটিউব হল গুগলের একটি সাইট। ভিডিও শেয়ারিং সাইট। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট। বর্তমানে এটি অ্যালেক্সা র‍্যাংকিং অনুযায়ী গুগলের পরেই এর স্থান। অর্থাৎ ২ নম্বর সাইট। ইউটিউব টাকা দেয় কারণ তারা আপনার ভিডিও-এর মাধ্যমে টাকা পায়। অর্থাৎ আপনার ভিডিও-তে তারা অ্যাড প্রকাশ করে। আর অ্যাড পাবলিশারেরা গুগলকে অর্থাৎ ইউটিউবকে টাকা দেয়। আবার সেই টাকার ৪৫-৫৫% তারা রেখে বাকি অংশ আপনাকে দেয়। সব মিলিয়ে লাভ হয় গুগলের। একটু হিসাব করে দেখবেন।

আপনি কিভাবে টাকা পাবেন?

ধরা যাক, আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুললেন। ভিডিও আপলোড করা শুরু করলেন। ধীরে ধীরে ভিউয়ার বাড়তে লাগল। সাবস্ক্রাইবার বাড়তে লাগল। যদিও আয় করার জন্য সাবস্ক্রাইবার লাগে না। লাগে ভিউয়ারস। এখন প্রশ্ন কত ভিউয়ারস?

আসলে মোটামুটি এক হাজার ভিউয়ারস হলে ইউটিউব আপনাকে টাকা দিয়ে থাকে। তবে এক হাজার ভিউয়ারস হলে কত টাকা দিবে আপনাকে?

এক্ষেত্রে ব্যাপারটা একটু জটিল। টাকা দেওয়ার ব্যাপারটা জানতে হলে আপনার জানতে হবে যে আপনার ভিউয়ারস কোন দেশ থেকে বেশি দেখছে। যেই দেশ যত উন্নত সেই দেশের থেকে ভিউ হলে আপনি টাকা বেশি পাবেন। যেমনঃ

ধরুন, আপনি ভিডিও তৈরি করেছেন বাংলায়। স্বভাবতই আপনার অধিকাংশ ভিউয়ারস হবে বাংলাদেশ ও ভারত থেকে। এক্ষেত্রে আপনি একটু কম টাকা পাবেন। কারণ আমরা উন্নতশীল দেশ। আবার ধরুন, আপনার ভিউয়ারসের অধিকাংশই আমেরিকার তবে আপনি বাংলাদেশের ভিউয়ারস থেকে যে টাকা পাবেন তার থেকেও ৪-৫গুণ বেশি টাকা পাবেন। কারণ অ্যাড পাবলিশাররা জানে যেআমেরিকায় তাদের মার্কেটপ্লেস অনেক বেশি। তাই তারা সে দেশ থেকে বেশি ভিউ হলে টাকা বেশি পেইড করে।

সুতরাং আপনার লক্ষ রাখতে হবে যে, আপনার ভিউয়ারস কোন দেশের?

 

টাকা আয়ের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও-এর মান

আপনি আপনার ভিডিও-এর দিকে নজর দিন। কোন দিকটা আরো উন্নত করা দরকার। ভয়েসটা আরেকটু ইডিট করা লাগবে কি না? কোথায় থেকে ভিডিও বানাচ্ছেন? ভিডিও-এর ব্যাকগ্রাউন্ড? আপনার ভিডিও কিসের উপর তৈরি করেছেন? ইত্যাদি ইত্যাদি।

একটা ভালো ভিডিও-এর সুবিধা অনেক। এর প্রধান সুবিধা হলঃ আপনার ভিডিও যদি মানসম্মত হয় এবং একবার দর্শকের নজর কারে তবে আপনার ইউটিউব লাইফ ঝিঙ্গালালা। কারণ এরপর থেকে আপনার ভিউয়ারস শুধু বাড়তেই থাকবে। তাই ভিডিও-এর দিকে নজর দিন।

ইউটিউব আয় করার জন্য যেগুলো লাগবেঃ
১। একটি গুগল অ্যাকাউন্ট
২। ভেরিফাইয়েড অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট
৩। ১৮+ বয়স (ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং অ্যাডসেন্স একাউন্ট এর জন্য)

এগুলো হলেই আপনি আয় শুরু করতে পারবেন। তবে বার বার আমি যে কথা টা বলি সেটা হলো ধৈর্য। আপনি প্রথমেই আয় করতে পারবেন না। ধীরে ধীরে আপনার চ্যানেলের ভিউয়ার এবং সাবস্ক্রাইবার বাড়াতে হবে।আপনি যদি লেগে থাকতে পারেন, তাহলে আপনি অবশ্যই পারবেন।

কিভাবে টাকা পাবেন?

টাকা পাওয়ার জন্য আপনার দরকার একটি গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাকাউন্ট। যেখানে আপনি আপনার Master Card অথবা Credit Card এর তথ্য দিবেন। আর সেখানেই আপনার টাকা দেওয়া হবে। তবে টাকা পাবেন অ্যাড পাওয়ার পরের মাসের শেষের দিকে। অর্থাৎ যদি আপনি জানুয়ারী মাস থেকে অ্যাডের সুবিধা পেয়ে থাকেন তবে এর টাকা পাবেন ফেব্রুয়ারী মাসের ২৫ তারিখের পরে। খুবই সহজ হিসাব। তবে এর জন্য আপনাকে ১৮+ হতে হবে। তাই দুঃখের হলেও সত্যি যে আমার এখনও ১৮ হয়নি তাই আমি অ্যাডসেন্স ব্যবহার করতে পারি নি।

আমরা অনেকেই আছি যাদের ইউটিউব চ্যানেল আছে, অনেকেই শখের বশে আবার অনেকেই $ আয় করার জন্য,আবার অনেকেই নতুন ইউটিউবিং শুরু করতে চান।

যে কারনেই ভিডিও আপলোড করুন না কেন, ভিডিও ভিউ এবং সাবস্ক্রাইবার অনেক জরুরী একটা ব্যাপার। অনেকেই অনেক আশা নিয়ে চ্যানেল খুলেছেন এবং ভিডিও আপলোড করছেন, কিন্তু ভিডিও ভিউস এবং সাবস্ক্রাইবার পাচ্ছেন না। এরই সমাধান নিয়েই আমার আজকের টিউন।

যাদের চ্যানেল আমার একেবারেই নতুন তাদের জন্য এই টিউনটি অনেক গুরুত্বপূর্ন। আজ আমি ১০ টি গোপন ট্রিকস দেবো ভালো ভিউ এবং সাবক্রাইবারস পাওয়ার জন্য। এই ১০ টা ট্রিকস মানলেই আমি সিওর আপনি আপনার প্রত্যাশিত ভিউয়ারস এবং সাবস্ক্রাইবার পাবেন।
এই ভিডিও তে এমন কিছু ট্রিকস আছে যেটা অনেক ইউটিউবার্স জানেন না।

বিদ্রঃএটি আমার চ্যানেল এর কোন ভিডিও নয়।আমি উপক্রিত হয়েছি বলে শেয়ার করেছি।

ভিডিও ভালো র‍্যাঙ্কিং পাও্যার জন্য

  • ১। কোয়ালিটি সম্পন্ন ভিডিও বানান।
  • ২। টাইটেল ট্যাগ ডেসক্রিপশন নির্বাচন করুন
  • ৩। ভিডিও থাম্বনেইল দিন
  • ৪। শেয়ারিং এবং টিউমেন্টস
  • ৫। ভিডিও লিঙ্ক বিল্ড-আপ করুন
  • ৬। ফ্রি ভিডিও অ্যাডস,

সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে এই ভিডিও তে।ভিডিও টি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই চ্যানেলটিতে সাবস্ক্রাইব করবেন।এছাড়া পরবর্তীতে একজন সফল ইউটিউবার্স হওয়ার জন্য কী কী করা লাগবে সেটা নিয়া আমি ধারাবাহিকভাবে টিউন করতে থাকবো।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.